গান এবং বিজ্ঞান এবং উদীচীর গান : মাধব রায়

মানব শিশু যেমন মাতৃগর্ভ থেকেই তার হৃদস্পন্দন শুরু করে দেয় এবং জন্মের পর দৈনিক এক লক্ষেরও বেশি বার, বছরে চার কোটিরও বেশিবার স্পন্দিত হয় তার হৃদয়, তেমনি তার বুদ্ধিবৃত্তিক বিকাশ শুরু হয় মাতৃগর্ভেই। বড় হয়ে আর বুড়ো হয়ে সে বুদ্ধিজীবী হোক বা না হোক, তার বুদ্ধির শুরু মায়েই পেটেই। বৃদ্ধির বিকাশ নির্ভর করে তা মস্তিস্কের নিউরনের মানের উপর। ১৪ থেকে ১৫ কোটি নিউরনের গুণগত মৌলিক গঠন শিশুটি জন্মসূত্রেই পেয়ে থাকে। জন্মের পর তার নিউরনের গুণগত পরিবর্তন হতে থাকে প্রায় দশ বছর পর্যন্ত। সেই দশ বছর তার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ তখন নিউরেনের মানের যে পরিবর্তন হয় তা তার অবস্থান বা পরিবেশ পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে। নিুমানের নিউরন নিয়ে জন্মগ্রহণকারী শিশু যদি বছর খানেক অনুকূল পরিবেশে লালিত পালিত হয়, তবে তার নিউরনের মান অনেকখানি উন্নত হয়। আবার উচুমানের নিউরন নিয়ে জন্মগ্রহণকারী শিশু যদি দশ বছর পর্যন্ত প্রতিকূল পরিবেশে বড় হয়, তবে তার নিউরনের মান নিুপর্যায়ে চলে যায় এবং এরপর সাধারণত নিউরনের মানের আর উন্নয়ন হয় না। Continue reading “গান এবং বিজ্ঞান এবং উদীচীর গান : মাধব রায়”