Categories
অগ্রগামী জীবনী

সুফিয়া কামাল

বেগম  সুফিয়া কামাল (জন্ম: ২০ জুন, ১৯১১ – মৃত্যু: ২০ নভম্বের, ১৯৯৯) বাংলাদশেরে একজন প্রথতিযশা কব,ি লখেকিা, নারীবাদী ও নারী আন্দোলনরে অন্যতম পথকিৃৎ হসিবেে অতি পরচিতি ব্যক্তত্বি।

সুফয়িা কামাল ১৯১১ সালরে ২০ জুন বরশিালরে শায়স্তোবাদে মামার বাড়তিে জন্মগ্রহণ করনে। তাঁর পতিার পতিার নাম সয়ৈদ আব্দুল বারী। তনিি কুমল্লিার বাসন্দিা ছলিনে। যে সময়ে সুফয়িা কামালরে জন্ম তখন বাঙ্গালি মুসলমি নারীদরে কাটাতে হত গৃহবন্দি জীবন। স্কুল কলজেে পড়ার কোনো সুযোগ তাদরে ছলিো না। পরবিারে বাংলা ভাষার প্রবশে এক রকম নষিদ্ধি ছলি। ঐ বরিুদ্ধ পরবিশেে স্বাভাবকিভাবইে সুফয়িা কামাল প্রাতষ্ঠিানকি শক্ষিার সুযোগ পানন।ি পারবিারকি নানা উত্থান পতনরে মধ্যইে তনিি স্বশক্ষিায় শক্ষিতি হয়ছেনে। তনিি তাঁর মা সাবরো বগেমরে কাছে বাংলা পড়তে শখেনে। ১৯২৪ সনে মাত্র ১৩ বছর বয়সে মামাত ভাই সয়ৈদ নহোল হোসনেরে সাথে সুফয়িার বয়িে দয়ো হয়।

নহোল অপক্ষোকৃত আধুনকিমনস্ক ছলিনে, তনিি সুফয়িা কামালকে সাহত্যিপাঠে উৎসাহতি করনে। সুফয়িা সে সময়রে বাঙালি সাহত্যিকিদরে লখো পড়তে শুরু করনে। ১৯১৮ সালে কলকাতায় যান সুফয়িা কামাল। সখোনে বগেম রোকয়ো সাখাওয়াত হোসনেরে সঙ্গে তাঁর দখো হয়। বগেম রোকয়োর কথা ও কাজ, সুফয়িা কামালরে শশিু মনে বশিষে জায়গা করে নয়িছেলিো, যার ফলে সুফয়িা কামালরে কাজর্কেমওে নানাভাবে বগেম রোকয়োর ছাপ পাওয়া যায়।

সাহত্যি পাঠরে পাশাপাশি সুফয়িা কামাল সাহত্যি রচনা শুরু করনে। ১৯২৬ সালে তাঁর প্রথম কবতিা বাসন্তী সসেময়রে প্রভাবশালী সাময়কিী ‘সওগাত’-এ প্রকাশতি হয়। সামাজকি সচতেনতা বৃদ্ধরি পাশাপাশি তাঁর সাহত্যির্চচা চলতে থাক।ে ১৯৩৭ সালে তাঁর গল্পরে সংকলন ‘কয়োর কাঁটা’ প্রকাশতি হয়। ১৯৩৮ সালে তাঁর প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘সাঁঝরে মায়া’র মুখবন্ধ লখিনে কাজী নজরুল ইসলাম।

১৯৩২ সালে স্বামীর আকস্মকি মৃত্যু সুফয়িা কামালকে র্আথকি সমস্যায় ফলে।ে তনিি কলকাতা র্কপােরশেন স্কুলে শক্ষিকতা শুরু করনে এবং ১৯৪২ সাল র্পযন্ত এ পশোয় নয়িোজতি থাকনে। এর মাঝে ১৯৩৯ সালে কামালউদ্দীন আহমদেরে সাথে তাঁর বয়িে হয়। দশেবভিাগরে র্পূবে তনিি নারীদরে জন্য প্রকাশতি সাময়কিী ‘বগেম’-এর সম্পাদক ছলিনে।

১৯৪৭ সালে দশেবভিাগরে পর সুফয়িা কামাল পরবিারসহ ঢাকায় চলে আসনে। ভাষা আন্দোলনে তনিি নজিে সক্রয়িভাবে অংশ ননে এবং এতে অংশ নয়োর জন্য নারীদরে উদ্বুদ্ধ করনে। ১৯৫৬ সালে শশিুদরে সংগঠন ‘কচকিাঁচার মলো’ প্রতষ্ঠিা করনে সুফয়িা কামাল। ১৯৬১ সালে পাকস্তিান সরকার র্কতৃক রবীন্দ্রসঙ্গীত নষিদ্ধিরে প্রতবিাদে সংগঠতি আন্দোলনে তনিি সক্রয়িভাবে অংশ ননে। সবেছর তনিি ছায়ানটরে প্রসেডিন্টে নর্বিাচতি হন। ১৯৬৯ সালে মহলিা সংগ্রাম কমটিরি সভাপতি নর্বিাচতি হন, গণঅভ্যুত্থানে অংশ ননে এবং পাকস্তিান সরকার র্কতৃক ইতপর্িূবে প্রদত্ত ‘তমঘা-ই-ইমতয়িাজ’ পদক র্বজন করনে।

১৯৭০ সালে ‘মহলিা পরষিদ’ প্রতষ্ঠিা করনে সুফয়িা কামাল। ১৯৭১ সালরে র্মাচে অসহযোগ আন্দোলনে নারীদরে মছিলিে নতেৃত্ব দনে তনি।ি মুক্তযিুদ্ধরে সময় তাঁর বাসভবন সংলগ্ন গোটা ধানমন্ডি এলাকা পাকস্তিানী বাহনিীর নরিাপত্তা হফোজতে ছলি, আর ঐ সময় তনিি ধানমন্ডতিে নজি বাসভবনে সপরবিারে নরিাপদে অবস্থান করনে। স্বাধীন বাংলাদশেে নারীজাগরণ আর সমঅধকিার প্রতষ্ঠিার সংগ্রামে তনিি উজ্জ্বল ভূমকিা রাখনে। ১৯৯০ সালে স্বরৈাচার বরিোধী আন্দোলনে শরকি হয়ছেনে, কারফউি উপক্ষো করে নীরব শোভাযাত্রা বরে করছেনে। মুক্তবুদ্ধরি পক্ষে এবং সাম্প্রদায়কিতা ও মৌলবাদরে বপিক্ষে আমৃত্যু সংগ্রাম করছেনে সুফয়িা কামাল। প্রতটিি প্রগতশিীল আন্দোলনে অংশ নয়িছেনে।

১৯৯৯ সালরে ২০ নভম্বের ঢাকায় সুফয়িা কামাল মৃত্যুবরণ করনে। তাঁকে র্পূণ রাষ্ট্রীয় র্মযাদায় সমাহতি করা হয়। নারীদরে মধ্যে তনিইি প্রথম এই সম্মান লাভ করনে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.