Categories
সংবাদ

শোষণমুক্তির সংগ্রামে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানিয়ে উদীচী’র মে দিবস পালন

May Day 14শোষণ মুক্তি সংগ্রামে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করার আহবান জানিয়ে মহান মে দিবস পালন করলো বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী। গত ০১ মে, মহান মে দিবস উপলক্ষে দেশব্যাপী নানা কর্মসূচি গ্রহণ করে উদীচী। এরই অংশ হিসেবে রাজধানীতেও ছিল উদীচী’র কয়েকটি কর্মসূচি। মহান মে দিবসের সকালে রাজধানীর মিরপুরের বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমাণ ট্রাকে করে প্রতিবাদী গণসঙ্গীত পরিবেশন করেন উদীচী’র শিল্পীরা। ট্রাকটি মিরপুর ১০ নম্বর গোল চত্বর, ১২ নম্বর চত্বর, কালশী ও পূরবী এলাকায় ভ্রমণ করে। ওইসব এলাকার সাধারণ মানুষ উদীচী’র শিল্পীদের গানে ব্যাপক সাড়া দেন।

সকালে ভ্রাম্যমাণ ট্রাকে করে গান পরিবেশনের পর বিকেলে দু’টি আলাদা স্থানে আয়োজিত হয় আলোচনা সভা ও প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বিকাল সাড়ে পাঁচটায় তেজগাঁও নাবিস্কো মোড়ে শহীদ মিনার সংলগ্ন মোড়ে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী ও গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত হয় আলোচনা সভা ও প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানের শুরুতেই প্রতিবাদী গণসঙ্গীত পরিবেশন করেন উদীচী’র শিল্পীরা। এরপর গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের তেজগাঁও আঞ্চলিক কমিটির নেতা আকলিমা আক্তার ডলির সভাপতিত্বে শুরু হয় আলোচনা সভা। এতে উপস্থিত ছিলেন উদীচী’র কেন্দ্রীয় সভাপতি কামাল লোহানী, উদীচী’র কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক প্রবীর সরদার, সহ-সাধারণ সম্পাদক জামসেদ আনোয়ার তপন, শ্রমিক নেতা এ্যাডভোকেট মন্টু ঘোষ, সাদেকুর রহমান শামীম, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল কাফি রতন, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের নেতা শামীম আহমেদসহ শ্রমিক নেতৃবৃন্দ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, বিশ্বের কোটি কোটি শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে আত্মবলিদানের মহান মহিমায় ভাস্বর একটি দিন। ১৮৮৬ সালের এই দিনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোর হে মার্কেটে শ্রমিকদের আন্দোলন ও রক্তদানের মহান ইতিহাস স্মরণে প্রতিবছর দিনটিকে যথাযথ মর্যাদায় বিশ্বব্যাপী পালন করা হয়। তারা বলেন, শতাধিক বছর আগের সেই শ্রমিক বিদ্রোহের পরও এখনও বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার আদায় হয়নি। এখনও বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ন্যূনতম মজুরীর দাবিতে বিক্ষোভ করছেন শ্রমিকরা। সভায় বক্তারা, গত বছর সংঘটিত সাভারের রানা প্লাজা হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত সকলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত এবং ওই ঘটনায় আহত শ্রমিকদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ দেয়ার দাবি জানান। আলোচনা সভার পর শুরু হয় প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান যাতে সঙ্গীত পরিবেশন করেন উদীচী’র বিভিন্ন শাখা ও সংসদের শিল্পীরা। এছাড়াও, ছিল শ্রমিকদের নানা দুঃখ-দুর্দশা ও অধিকার আদায়ের সংগ্রাম নিয়ে প্রাচ্যনাটের পরিবেশনায় পথনাটক “আগুন খেলা”।

তেজগাঁও ছাড়া, মিরপুরেও আয়োজিত হয় বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী ও গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের যৌথ উদ্যোগে আলোচনা সভা ও প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। মিরপুরের সেনপাড়া বিআরটিএ কার্যালয় সংলগ্ন রাস্তায় বিকাল পাঁচটায় অনুষ্ঠানটি শুরু হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে ছিল আলোচনা সভা। গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের মিরপুর শাখার সভাপতি শহীদুল ইসলাম রানার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি- সিপিবি’র কেন্দ্রীয় নেতা মোরশেদ আলম, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের সহ-সাধারণ সম্পাদক ডা. সাজেদুল ইসলাম রুবেল, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর কেন্দ্রীয় দপ্তর বিষয়ক সম্পাদক ইকবালুল হক খান, শহীদুল ইসলামসহ শ্রমিক নেতৃবৃন্দ। আলোচনা সভার পর প্রতিবাদী গণসঙ্গীত পরিবেশন করেন উদীচী’র কাফরুল, পল্লবী ও কল্যাণপুর শাখার শিল্পীরা।